Thursday, July 16, 2015

য়ানো

-কী হল য়ানো? অমন উদ্ভ্রান্তের মত কী খুঁজে চলেছ?

-আর বল কেন খুড়ো। সব বুঝি জলে গেল। 

-আরে যাত্রা শুরুর সময় হয়ে এল যে।

-যাত্রা যে পণ্ড হতে বসেছে খুড়ো।

-এতদিন ধরে এতকিছু যোগাড় করর জাহাজ বোঝাই করলে। নিশ্চিন্দি হয়ে আমরা সকলে বসে আছি তোমার সাথে ভেসে বেড়িয়ে বিপদ থেকে দূরে থাকব। এখন আবার হলটা কী? 
-আসল জিনিষটাই যে খুঁজে পাচ্ছি না। আমার বৌ যে আমায় চিবিয়ে খাবে।
-কী এমন জিনিষ য়ানো?
-সাংঘাতিক জিনিষ। নিশ্চিত আমি এই তোষোকের তলায় রেখেছিলাম। কিন্তু আজ যে কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছি না। গতকালই বড় মুখ করে গিন্নীকে বললাম যে ও জিনিষ ছাড়া আমি জাহাজের নোঙর তোলার আহাম্মকি করলে আমি নিজের নাম উল্টে নতুন নাম রাখব।
-আহা জিনিষটা কী সে'টা শুনি।
-আনন্দবাজারের সাপ্তাহিক রাশিফলের পাতাটা। তার সাথে বশীকরণ এক্সপোর্টদের মূল্যবান বিজ্ঞাপনগুলো। এত গুরুত্বপূর্ণ যাত্রা। যাত্রাপথে পড়ার কথা ছিল। গিন্নী পইপই করে বলেছিল সাবধানে রাখতে। পড়তে না পারলে যে পিছিয়ে পড়তে হবে খুড়ো।
-কিন্তু আর যে খোঁজার সময় নেই য়ানো।
-হায় হায়। এখন উপায়?
-বৌমাকে কথা দিয়েছ সে জিনিষ না পাওয়া গেলে নিজের নাম উল্টে নতুন নাম রাখবে। যাত্রা যখন শুরু করতেই হবে য়ানো, নিজের নাম উল্টেই দাও। য়ানোর নৌকার বদলে আমাদের নৌকার হল গিয়ে তাহলে নোয়ার নৌকা। তাই তো?
-অগত্যা।

No comments:

ধপাস

সাঁইসাঁই। সাঁইসাঁই। সাঁইসাঁই। পড়ছি তো পড়ছিই। পড়ছি তো পড়ছিই। পড়ছি তো পড়ছিই। পড়ছি তো পড়ছিই। বহুক্ষণ পর আমার পড়া একটা প্রবল 'ধপ...