Sunday, December 20, 2015

খুনে

পকেট থেকে ব্লেডটা সাবধানে বের করলে তপেন। কাগজের মোড়কটা খুলে নতুন সেভেন'ওক্লকটা সুমিত্রার গলায় আলতো করে চেপে ধরলে সে। থরথর করে কাঁপা ছাড়া কিছুই করার ছিল না সুমিত্রার। কষে বাঁধা সুমিত্রা তখন অসহায়।
একটা মৃদু রক্তের রেখা সুমিত্রার গলা বেয়ে নামতে শুরু করেছিল। তবে গলার নিচে সেটা বয়ে আসার আগেই তা চেটে নিল তপেন।
**

- গতকাল ব্যাটা নীলিমার বুক চিরে খেয়েছে। আজ পড়েছে সুমিত্রাকে নিয়ে।

- নীলিমা? সুমিত্রা? কী বলছেন ডাক্তার?

- তপেনের কেসটা যে সে কেস নয় হে। তোমায় এমনি এমনি অব্জার্ভ করতে বলিনি। প্রেমে লেঙ্গি আর মিষ্টি অবসেশনের অদ্ভুত কনককশন। জলভরাকে সুমিত্রা বলে ডাকা আর ক্ষীরকদমকে নীলিমা বলে চেনা, এই দায়ভার থেকে তপেনকে মুক্তি দেওয়ার ক্ষমতা মেডিক্যাল সায়েন্সের অন্তত নেই।

No comments:

দ্য গ্র‍্যান্ড তুকতাক

- কী চাই? - হুঁ? - কী চাই? চাকরীতে টপাটপ প্রমোশন বাগানোর মাদুলি? শুগার কন্ট্রোলে রাখার তাবিজ? হাড়বজ্জাত মানুষজনের বদনজর এড়িয়ে চল...