Monday, August 3, 2020

প্ল্যানপ্ল্যানানি


- গত পুজোয় আমরা হিমাচল যাওয়ার প্ল্যান করেছিলাম৷ তাই না বউ?

- তাই তো। ট্রেনে দিল্লী। দিল্লী থেকে বাসে চেপে শিমলা।

- আর তারপর একটা প্রাইভেট গাড়ি ভাড়া করে দু'হপ্তার ভ্রমণ। শিমলা, মানালি, রোটাং, কাজা, চিতকুল। আহা।

- তোমার ফ্যাক্টরির হইহইরইরই নেই৷ আমার স্কুলের গোলমাল নেই৷ অ্যাই, ওয়েলিংটন থেকে দু'টো জ্যাকেট এনেছিলে তুমি, মনে আছে? কত ভাবলাম হিমাচলের কনকনে শীতে ওই জ্যাকেট দু'টো কাজে লাগবে৷ 

- সে জ্যাকেট-জোড়ার কথা মনে থাকবে না আবার? বেশ ভালো দরে বাগিয়েছিলাম কিন্তু। আর টপ কোয়ালিটি।

- স্পিতি নদীর ধারে বসে ডিমসেদ্ধ আর ম্যাগি খাবো ভেবেছিলাম। তাই না গো বর?

- আর কাজা নামের ওই গ্রামটায় দিন-তিনেক গা এলিয়ে কাটিয়ে দেওয়া? সকালে হাঁটাহাঁটি? দুপুরে আমার গান শোনা আর তোমার বইয়ে মুখ গুঁজে বসে থাকা?

- আর সন্ধ্যেবেলা জমিয়ে গল্প আর তাস। তাই না গো?

- টাকাপয়সার সামান্য ইয়ের জন্য হিমাচল যাওয়া হল না বটে। কিন্তু যাই বলো, অমন জব্বর প্ল্যান ছকেও আরাম।

- বটেই তো৷ কেন, তার আগের পুজোয় সেই যে আন্দামান যাব ভাবলাম? সে'টা মনে নেই?

- মনে নেই আবার। সে তো গ্র‍্যান্ড প্ল্যান ছিল। তাই না গো বউ? প্লেনে পোর্ট ব্লেয়ার৷ সাতদিন লাটিয়ে জাহাজের ঘ্যামে ওয়াপিস কলকাতা।

- উফ। ভাবলেই থ্রিল। গায়ে কাঁটা।

- ট্র‍্যাভেল ম্যাগাজিনের সেই ছবিগুলো এখনও চোখে ভাসে জানো। আন্দামানের সেই নীল সমুদ্দুর...। আহা। দীঘার সমুদ্র সে নীলের কাছে পাতি চৌবাচ্চা।

- রাধানগর বীচ, হ্যাভলক, ভাইপার, নীল...।

- আহা। পোয়েট্রি। পোয়েট্রি। রাতের পর রাত আমরা গুগল ঘেঁটেছি। তাই না গো?

- রাতের পর রাত। আহা। সত্যিই। 

- সে'টাও তো গেল ভেস্তে। মাঝেমধ্যে মনে হয় বছরে একটা করে যদি লটারি পাওয়া যেত..।

- বছরে একটা বঙ্গলক্ষ্মী বাম্পার? বরকুমার, তা'হলে তার আগের পুজোয় লাদাখ যাওয়ার পরিকল্পনাটাও ভেস্তে যেত না গো। 

- আর তার আগের পুজোর রাজস্থান ট্রিপটাও...বানচাল হত না।

- আর তার আগের পুজোয়? তাত আগের পুজোয় কোথায় যাওয়ার প্ল্যান ক্যান্সেল করেছি আমরা?

- নাহ্। সে'পুজোর প্ল্যান ভোগে যায়নি গো৷ তখন তো আমাদের নন্দনে দেখা হচ্ছে প্রতি সন্ধ্যেয়।  অথবা মিলেনিয়াম পার্ক৷ 

- ও হ্যাঁ। সে বছর তো সদ্য আলাপ। আর চটজলদি হুজুগে পুজোয় বিয়ের প্ল্যান।

- ভাগ্যিস রেজিস্ট্রি বিয়েতে ট্রেনের টিকিট বা হোটেল বুকিংয়ের খরচটুকু ছিলনা। সেই পুজোর প্ল্যানটা তাই ভেসে যায়নি। কী বলো?

- হেহ্। এ'বার পুজোয় অবিশ্যি প্ল্যান ছকেও লাভ নেই। করোনা সে'সমস্ত ভাসিয়ে নিয়েছে।

- করোনা না থাকলেও যেতে পারতাম কই? একজোড়া সেল্ফিশ জায়্যান্টের মত দেশভ্রমণে বেরোলে, তোমার মায়ের ট্রিটমেন্ট আমার বোনের কোর্সফীর খরচ কে দিত?

- উম। তা ঠিক। কাজেই পুজোর ছুটিতে ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যানটুকু অন্তত না করার কোনও মানেই হয়না। তাই না গো?

- শাবাশ ওয়াটসন! শাবাশ!

No comments:

অনুরাগের লুডো

অনুরাগবাবু আমার অত্যন্ত প্রিয়৷ তার মূলে রয়েছে "বরফি"। লোকমুখে ও বিভিন্ন রিভিউয়ের মাধ্যমে জেনেছি যে বরফিতে ভুলভ্রান্তি ...