Sunday, May 1, 2016

অন্য পুকুর

- রজনীদা।
- সুমনবাবু, এই এতক্ষণে আসবার সময় হল?
- না মানে, এত জ্যাম!
- রোববারে জ্যাম?
- না মানে, প্রথমে বালিশ টপকানো, তারপরে পাশবালিশ টপকানো, তারপরে  সোফা ডিঙিয়ে...।
- এত গড়িমসি নিয়ে সাংবাদিকতা করেন কী করে বলুন তো? আপনার জন্য এদিকে মেজর একটা ইভেন্ট পিছিয়ে যাচ্ছে। মিডিয়া কভার না করলে আমি কামালটা করি কী করে?
- কামাল?
- অ্যামেজিং। স্টুপিফাইং। 
- রিয়েলি?
- কালকের ফ্রন্ট পেজ। দেখবেন, ভোটের বাজার বলে আবার ভিতরের পাতায় ঠেকে দেবেন না যেন। 
- ব্যাপারটা কী রজনীবাবু?
- সামনে কী দেখছেন?
- বিশাল গর্ত। বিশাল। 
- করেক্ট। এবারে এটাকে আমি পুকুরে কনভার্ট করব। 
- এই হল কামাল?
- ইয়েস। 
- মাটি কুপিয়ে তাতে জল ভরে পুকুর করবেন, আর সে'টা কামাল ? আর এর জন্য আমায় ডেকে এনেছেন রোব্বারে? জানেন আজ বাড়িতে রেজালা হচ্ছে? 
- আরে এ পুকুর যে সে পুকুরে নয়।
- নয়?
- এ পুকুরে কি আমি কর্পোরেশনের জল হোসপাইপে দিয়ে ভরব ভেবেছেন?
- তবে? 
- প্রথম চোখের জলে তৈরি পুকুর হবে এ'টা।
- চোখের জলে? পুকুর ভরবেন?
- ইয়েস। চোখের জলে। এই যে সরু পাইপ জোড়া দেখছেন, এই দু'টো চোখে লাগাবো। পাইপের একদিক আমার চোখে, অন্যদিকে গর্তে। এক ঘণ্টার কম সময়ে পুকুর ভরে দেব। 
- ইম্পসিব্‌ল। 
- আমি রজনীকান্ত। 
- হতে পারেন। হাইজাম্প দিয়ে চাঁদে যাওয়া বিশ্বাস করতে পারি। কিন্তু চোখের জলে গর্ত ভরে পুকুর ক্রিয়েট করা? নামুমকিন। 
- এই আপনাদের স্কেপ্টিসিজ্‌মের জন্যেই তো ডেকে নেওয়া। আপনার চোখের সামনে আমার চোখের জলের কেরামতি ডেমোন্সট্রেট করে দিচ্ছি। দাঁড়ান পাইপটা ফিট করি। 
- বেশ। 
- পাইপ ফিট। ওকে?
- ওকে। নিন, কান্না শুরু করুন দেখি। 
- দাঁড়ান মশাই। নর্মাল কান্নায় পুকুর ভরবে? পাম্প চালাতে হবে।
- চোখের জলের পাম্প?
- অফ কোর্স। পাম্প চালাতেই জলের রিয়েল ফ্লো চালু হবে। পুকুর রেডি হয়ে যাবে আধ ঘণ্টার মধ্যে। ম্যাক্সিমাম চল্লিশ মিনিট, তার বেশি নয়। এক ঘণ্টা পাম্প চালিয়ে কাঁদলে ক্যালক্যাটা হাঁটু জলে নেমে যাবে।
- ধেত।
- পলিটিকাল নেতারা যখন আগডুম বাগডুম ঝাড়ে  তখন তো কোনদিন ধেত বলতে শুনিনি! সায়েন্স আর টেকনোলজির ব্যাপারেই যত বাগড়া। 
- নিন, জলদি করুন। পাম্প চালান। রোদ বাড়লে আবার অসুবিধে, ছাতা ক্যারি করছি না। 
- ওই দিকে দেখুন, ওই দিকে। পাম্প রাখা আছে। চালিয়ে দিন। আমি কান্নায় কনসেন্ট্রেট করছি। 
- পাম্প কই?
- ওই তো। 
- ও'টা তো টেপ রেকর্ডার। 
- ও'টাই পাম্প। হাজার এইচ পির।
- হাজার হর্স পাওয়ার?
- হাজার হাউহাউ পাওয়ার। নিন, চালিয়ে দিন।
- ওটাই পাম্প? আপনি শিওর?
- নয়তো আর বলছি কেন? ক্যুইক ক্যুইক! চালিয়ে দিন। পুকুর ভরে ফেলি চোখের জলে। 

সুমনবাবু টেপরেকর্ডার চালিয়ে দিতেই ভেসে এলো মান্না দের কালজয়ী বিরহের গান, একের পর এক। 

আধ ঘণ্টার মাথায় চোখ থেকে পাইপ খুলে সর্ষের তেলের বাটি আর গামছা হাতে পুকুর পাড়ে গিয়ে থেবড়ে বসলেন রজনীকান্ত।  

2 comments:

Anonymous said...

certifiably genuine. Enjoyed it.

Shromana Chatterjee said...

onoboddo :)

অনুরাগের লুডো

অনুরাগবাবু আমার অত্যন্ত প্রিয়৷ তার মূলে রয়েছে "বরফি"। লোকমুখে ও বিভিন্ন রিভিউয়ের মাধ্যমে জেনেছি যে বরফিতে ভুলভ্রান্তি ...