Sunday, May 22, 2016

ডেট

- অপ্টিমিজম একটা অসুখ।
- ব্যারাম তোমার মাথায় শুভ্র।  উফ।
- কী এমন ভুল বলেছি?
-  অপ্টিমিজম অসুখ? আশাবাদী হওয়া অসুস্থতার লক্ষণ? অপরাধ?
- অপরাধ আমি বলিনি মিতা। ডেলিরিয়াস হওয়াটা অপরাধ নয়।
- শুভ্র। প্লিজ। গো।
- তোমার ডেট এখনও এসে পৌঁছায়নি।  রিল্যাক্স। আর পার্ক স্ট্রিটে যে জ্যাম দেখলাম ওর আসতে মিনিমাম আরও আধ ঘণ্টা।
- অনিকেত তোমায় দেখলে তোমার চোয়াল ফাটিয়ে দেবে।
- এ জন্যেই আমি অবাক হয়ে যাই। তুমি মিলটন ভক্ত। আর তুমি প্রেম করছ এমন একজনের সাথে যার স্ট্যান্ডার্ড এক্সপ্রেশন অফ প্রটেস্ট হচ্ছে চোয়াল ফাটানো ঘুষি। তবে ইন আ ওয়ে ইউ কনফর্ম টু মাই থিওরি।
- প্রথমত। আমার ফিয়ন্সের ব্যাপারে ননসেন্স শুনতে আমি রাজী নই। দ্বিতীয়ত, কোন থিওরি?
- যে লাইফ হ্যাস নাথিং পসিটিভ টু অফার। জীবন মানেই অন্ধকারে ড্রেনের পাশে বসে মিইয়ে যাওয়া মুড়ি পচা রসগোল্লার রসে মেখে খাওয়া।
- শুভ্র। শাট আপ। ইউ আর ডিসগাস্টিং।
- আমি ডিসগাস্টিং? আমি? তোমায় চোখে আঙুল দিয়ে দেখানো সত্যিগুলো বলি বলে ডিসগাস্টিং?
- তুমি উঠবে না আমি ওয়েটারকে ডেকে কমপ্লেন করব?
- ওয়েটারকে ডাকতেই হলে আমার জন্য একটা পেগ বলে দাও। ওয়ান ফর দ্য রোড।
- ইউ আর টু মাচ।
- পৃথিবীটা শেমফুলি হোপলেস। সে'টা মানতে তোমার অসুবিধে কোথায়? নিজেকে ঠকাতে এত ভালোবাসো কেন?
- কারণ পৃথিবীতে আশা আছে। ইটস বিউটিফুল।
- টেল মি ওয়ান গুড রিজন।
- বিকজ দেয়ার আর গুড পিপল।
- গুড পিপল? আলাইভ? আর ইউ কিডিং মি??
- অফ কোর্স দেয়ার। আর গুড পিপল।
- উই আর অল থাগস। অনিকেতকে বেঞ্চমার্ক করে কারুর প্রশংসা করতে যেওনা। অন অ্যান অ্যাভারেজ, উই আর হারামি টু দি পাওয়ার ইনফিনিটি। ইনফ্যাক্ট দ্যাট ইজ হাউ ইকনমিজ ওয়র্ক। প্রত্যেকটা মানুষ ধান্দাবাজ, এই বেসিক প্রিন্সিপ্যালে ভর করে অর্থনীতি চলছে।
- একসময় তোমায় পলিটিক্যালি অ্যাওয়ার ভাবতাম। তুমি যে এতটা নচ্ছার...।
- পলিটিক্স? কে আছে? কোন পলিটিকাল ইডিওলজি মাথায় কাঁঠাল না ভেঙে সার্ভাইভ করছে? দেশেই দেখো না। বিজেপি টু কঙ্গ্রেস টু তৃণ টু কম্যুনিস্টস; সবাই ফ্রিঞ্জ বেনেফিটস আর রেটোরিক ছুঁড়ে নিজেদের ল্যাক অফ ফারসাইটকে ঢাকছে।। আদ্দামড়াদের দল; অথচ কারুর গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের ওপর সাসটেনেবল পলিসি আছে? সমস্ত ফ্রিঞ্জ ইস্যু নিয়ে লাফালাফি। শেমফুল।
- আর্ট?
- আহ। আর্ট। একটা স্পেশি পলিটিক্যালি সুইসাইড করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ,  তাদের থেকে তুমি আর্ট এক্সপেক্ট করছ? আর্ট দ্যাট উইল ট্র‍্যান্সেড টাইম? অন্তত বাঙালি হয়ে এ সময়ে আর্টের বড়াই করতে এসো না। এক্সেপশন কোট করে ভয়েডকে ডিফেন্ড করতে যেও না।
- তুমি বলছ বাঙালির শিল্প সাহিত্য কিস্যু নেই?
- ছিল। কিন্তু বর্তমান ডায়রেকশনটা সুইসাইডাল, বলছি তো। অবশ্য খোরাক বনে যাওয়ার যুগ, শুধু বাঙালি কেন; কেউই আর পিছিয়ে থাকবে না।
- তাহলে এই বস্তাপচা দুনিয়ায় তুমি বেঁচে আছো কেন শুভ্র?  সুইসাইড করছ না কেন?
- কারণ আমি সুইসাইড করলে দুনিয়ার অ্যাভারেজ আইকিউ সামান্য হলেও কমে যাবে।
- শুভ্র। জাস্ট গো অ্যান্ড ডাই। অনিকেত ঢুকলো বলে। প্লীজ।
- এই। এই হচ্ছে কারণ আমার সুইসাইড না করার, খামোখা দুনিয়ায় অনিকেতদের প্রপোরশন বাড়িয়ে দিয়ে কী লাভ?
- হে ভগবান। আই ফিল লাইক কিলিং মাইসেল্ফ নাও।গশ! শুভ্র! ইউ আর সো ফ্রিকিং নেগেটিভ।
- রিয়েলিস্ট ইজ দ্য ওয়ার্ড। আর এ দুনিয়া এতটা জঞ্জালপূর্ণ যে প্রতেকটা বুদ্ধিমান মানুষেরই মনে হওয়া উচিৎ যে মরে যাওয়াই ভালো। তবে ওই, তুমি সুইসাইড করলেও এ দুনিয়ায় বুদ্ধিমান মানুষদের প্রপোরশন কমে যাবে। তোমার অনিকেতদের পোয়াবারো হবে। ওহ, এটা খেয়াল করে দেখেছো কি যে বোকাদের মনে বাড়তি ফুর্তি থাকে? টেক অনিকেত ফর এগগজ্যাম্পল...।
- উফফফ। মা গো!
- একটা সলিউশন আছে।
- কী সলিউশন শুভ্র? প্লীজ টেল মি।
- দু'জনে মিলে সুইসাইড করি চলো। ঢাকুরিয়ায় আমাদের ফ্ল্যাটের পাশেই রেললাইন। সেখানে একটা ফ্যান্টাসটিক স্পট দেখা আছে আমার। রাত পৌনে বারোটা নাগাদ একটা ট্রেন যায়। এখনও ট্যাক্সি নিলে কচুকাটা হতে অসুবিধে নেই।
- দু'জনেই সুইসাইড করলে দুনিয়ার অ্যাভারেজ আইকিউ কোথায় গিয়ে নামবে ভেবেছো?
- মিতা। যে দুনিয়ায় আমি তুমি  দুজনেই নেই, সে দুনিয়াটা থিওরেটিকালি অ্যাবসার্ড। আমরা দু'জনেই সরে পড়লে জেনো এ দুনিয়ার দুনিয়াত্বও গায়েব হয়ে যাবে। তখন বুদ্ধিমান আর বোকাপাঁঠায় ফারাক থাকবে না।
- অনিকেত টেক্সট করেছে, পাঁচ মিনিটে ঢুকছে।
- বেশ। আমি উঠলাম।
- শুভ্র। সুইসাইড স্পটটা, আজ অ্যাভেলবল আছে?
- হুঁ?
- এখন ট্যাক্সি নিলে, সুইসাইড স্পটে রাত পৌনে বারোটার মধ্যে পৌঁছতে পারবো না, তাই না শুভ্রবাবু?
- একান্তই দেরী হয়ে গেলেও চিন্তা নেই, আমার ফ্ল্যাট খালি পড়ে রয়েছে। আজ রাতটা না হয় জিরিয়ে নেবে'খন। আমি রুটি তড়কা প্যাক করিয়ে আনবো। ডিম তড়কা। মাখন দেওয়া। তাছাড়া ফ্রিজে জলভরা রয়েছে।
- ইউ আর ডিসগাস্টিং শুভ্র।
- সো ইজ দ্য ওয়ার্ল্ড।
- লেটস গো।
- ক্যুইক।

2 comments:

Nilanjan said...

চকমৎকার, চমৎকার!

sourav sarkar said...

💜💜💜