Saturday, April 9, 2016

পেয়ারেলালের নিলাম

- নাম?
- পেয়ারেলাল।
- পেয়ারেলাল কী?
- পেয়ারেলাল। ব্যাস। 
- পদবী?
- ভূতের আবার পদবী!
- আচ্ছা বেশ। বয়স? 
- জন্ম থেকে না মৃত্যু থেকে?
- অকশনের কোয়ালিফিকেশন রুল্‌স দেখা আছে কি নেই?
- গরীব ভূত। চাষা  ভূত। নিয়ম কানুন দেখালে হবে স্যার?
- দশ বছরের বেশি পুরনো মড়া হলে চলবে না।
- আমার ওই বছর সাতেক হয়েছে। 
- আঁধার কার্ড দেখি?
- এই যে।
- হুঁ। ঠিক হ্যায়। 
- আজ্ঞে, নিলাম ডাকা ক'টা থেকে শুরু? 
- এই কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শুরু হবে। ক্রেডেনশিয়ালস্‌ কই?
- আজ্ঞে?
- চাষাদের নিয়ে এই অসুবিধে। নিয়মকানুন পড়ার ক্ষমতা নেই অথচ এদের ভূতদের নিয়েই অকশন। শুনুন, আমি যে'টা বলছি; মানে, আপনার ক্ষমতার লিস্ট চাই! তুকতাকের দম কতটা! ভেল্কি দেখানোর ক্ষমতা কতটা! সে ফর্ম ফিল আপ করা আছে?
- মরার আগে টিপ সই দিতাম। 
- আচ্ছা বেশ। আপনি বলে যান। আমি টুকে নিচ্ছি। 
- বঢিয়া।
- তার আগে বলে দিই এ নিলামে আপনাকে কে কিনবে সে খবর  রাখেন তো?
- সে'সব জানি। আইপিএলের আটটা টিম ভূত কিনবে। চাষাদের ভূত। টিমকে জিততে সাহায্য করতে হবে। আর অপনেন্ট কে গুলিয়ে দিতে হবে। 
- কারেক্ট। এবারে বলুন। ব্যাটসম্যানদের সাহায্য করতে কী কী পারবেন আপনি? ব্যাটে ঢোকার ক্ষমতা আছে? ব্যাটে ঢুকে ভেল্কি দেখানোর?
- বিলকুল আছে। 
- ভেরি গুড।
- বলে ঢুকে বোলারদের হেল্প করতে পারবেন?
- বিলকুল। 
- ভেরি ভেরি গুড। আপনার বেস্‌ প্রাইস ওপরের দিকেই থাকবে।
- অপোনেন্ট ব্যাটসম্যান বা বোলারদের ব্যাটে বলে ঢুকে থাকা ভূতদের সঙ্গে কুস্তি করতে পারবেন?
- জরুর। 
- চমৎকার। আর ইয়ে। হাওয়ায় ভেসে গিয়ে মাঠ জুড়ে ছোট ইয়ে করে আসতে পারবেন? অপোনেন্ট বোলিংকে ডিউ প্রবলেমে কিস্তি মাত করার জন্য?
- ছোট ইয়ে? সে'টা কী সাহেব?
- ছোট বাথরুম।
- পেচ্ছাপ?
- আহ্‌! রাস্টিক ভাবে বলবেন না প্লীজ। প্লীজ। ইয়ে, পারবেন?
- ভূত হয়ে সে ক্ষমতা বহুত বেড়ে গেছে।
- যাক গে। ব্রিলিয়ান্ট। 
- পিচে থুতু ফেলে স্যুইংয়ে অ্যাসিস্ট করতে পারবেন?
- যেখানে বলবেন সেখানেই। থুতুই তো। ভূতদের বাছবিচার নেই ও'সবে। 
- বাহ্‌! সবেতেই তো টিক পড়ল। আপনাকে নিয়ে বেশ টানাটানি হবে। বুঝতেই পারছি। তাহলে বেস প্রাইস কত রাখা যাবে আপনার?
- বেস কী? 
- বেস প্রাইস! যার জন্যে আপনি নিলামে হতে এসেছেন।
- শুনলাম জল পাওয়া যাবে। 
- অফ কোর্স যাবে। ধরুন আপনার বেস প্রাইস যদি কুড়ি হাজার লিটার জল হল! আর তার মাথায় ডাকাডাকি করে ধরুন গিয়ে সে প্রাইস গিয়ে ঠেকলো তিরিশ হাজার লিটার জলে; তো সেই পরিমাণের জল আপনার ফ্যামিলির কাছে পৌঁছে দেবে সেই টিম যে আপনাকে কিনবে।
- যাক। মরে একটা কাজের কাজ হল। প্রতি বছরই এ নিলাম হবে তো?
- অফ কোর্স। চাষা ভূতদের অকশনটা প্রতি বছরই হতে চলেছে।
- তিরিশ হাজার লিটার জল। অনেক না?
- অনেক মানে? ভাবতেও পারবেন না। 
- গম ফলবে তাহলে? 
- বিলকুল। 
- ছেলেটাকে সামনের নিলামে তাহলে আর এখানে দেখতে হবে না হয়তো। এটা ভালোই হল। 
- ওহ। ইয়ে। যাক গে। এইখানে একটা টিপসই প্লিজ।  

3 comments:

Anonymous said...

ছিঃ ছিঃ। সা্রকাসের আঙিনায় তেরঙ্গার পত্ পত্ বন্ধ করার প্রয়াস মোটেও কাম্য নয়।

aritra nayak said...

boddo valo..

Kuntal Chaudhuri said...

আপনার লেখাগুলি বেশ সুন্দর। ভালো লাগলো।