Saturday, April 23, 2016

তাঁর মিত্তির

- আসুন।
- মানে?
- উঠে আসুন। আসুন,আসুন।
- উঠে আসব মানে?
- এখন তো ঝামেলা সমস্ত মিটে গেছে। অ্যাস্ট্রাল প্রজেকশনের দরকার নেই তো। পার্মানেন্ট ডিপার্চার। উঠে আসুন। আসুন। এই হাত বাড়ালাম।
- ঝামেলা মিটে গেছে?
- ডেফিনিটলি গেছে।
- শরীরটাও বেশ ঝরঝরে লাগছে বটে।
- শরীর?
- ওহ্‌। সরি। আসলে মাথাটা এমন গুলিয়ে যাচ্ছে...।
- মাথাই নেই তো গুলিয়ে যাওয়া।
- করেক্ট। তা আপনি তো...?
- ভূত কিনা জিজ্ঞেস করছেন? অবভিয়াসলি না।
- তাই তো। কল্পনার আবার মৃত্যু তার আবার ভূত হওয়া। তবে 
অফ অল পিপ্‌ল, আপনি আমায় দেহ থেকে টেনে তুলবেন ভাবিনি।
- ওহ্‌। আমি তো আবার আপনার ফেমাস ক্রিয়েশনে একজন নই।
- ফেমাস হতে হলে বোধ হয় সহজ পাচ্য হতে হয়। তাই না মিস্টার মিত্তির?
- ইউ মিন ফর মাসেস্‌, তাই তো?
- রাইট। এবং আপনি আসায় আমি যতটা খুশি হয়েছি, অন্য কেউ এলে ততটা হতাম না। ডেফিনিটলি। আচ্ছা, মিস্টার মিত্তির! আপনি অন্য মিস্টার মিত্তিরকে চেনেন?
- আপনি অন্য রায় কে চেনেন?
- কোন রায়?
- এগজ্যাক্টলি। কোন মিত্তির?
- হেহ্‌।
- আসুন।


No comments:

অনুরাগের লুডো

অনুরাগবাবু আমার অত্যন্ত প্রিয়৷ তার মূলে রয়েছে "বরফি"। লোকমুখে ও বিভিন্ন রিভিউয়ের মাধ্যমে জেনেছি যে বরফিতে ভুলভ্রান্তি ...