Sunday, April 17, 2022

বন্দুকবাজ বাঘ উত্তমকুমার



লালমোহন গাঙ্গুলির বোম্বাইয়ের বোম্বেটে উপন্যাস অবলম্বনে যে বলিউডি সিনেমা তৈরি হয়েছিল সে'টার নাম দাঁড়িয়েছিল 'জেট বাহাদুর'। নামের মধ্যে স্পীড, দুঃসাহস আর অ্যাডভেঞ্চার সবই ছিল৷ যাকে বলে থ্রিসিক্সটিডিগ্রি অ্যাপিল৷ পরিচালক পুলকবাবু নিশ্চিত ছিলেন যে দর্শক স্রেফ নামের জোরেই অর্ধেক ঘায়েল হবে৷ 

তা এদ্দিনে সেই জেট বাহাদুরকে টেক্কা দেওয়ার মত নাম চলে এসেছে বাজারে৷ অবশ্য সিনেমায় নয়, বইয়ে। তবে নামটা যে কী সাংঘাতিক সিনেম্যাটিক। সেই নামের মধ্যে কী নেই?
সুপারহিরোর ঘ্যাম? আছে৷
রোম্যান্টিক আবেদন? আছে।
ঢিশুম ঢিশকাঁও মার্কা অ্যাকশন? ইয়েস স্যার। 
রূপকথা? তাও আছে৷

মানে যা যা আপনাকে আকৃষ্ট করতে পারে; সে সমস্ত উপাদান বইয়ের নামের মধ্যেই আছে।

"উত্তমকুমারঃ এক বন্দুকবাজ বাঘের গল্প"।

 এ'রকম রক্তারক্তি নাম দেওয়ার পর সেই থ্রিল গোটা গল্পে ধরে রাখা চাট্টিখানি কথা নয়। কিন্তু রোহণ কুদ্দুসের সাদামাটা ভালোমানুষ চেহারার আড়ালে লুকিয়ে আছে মগনলালের প্রাইভেট সার্কাস মাত করে দেওয়া এক খতরো কা খিলাড়ি। সেই খিলাড়িপনা দিয়েই এই গল্প জেটবাহাদুরত্ব অর্জন করেছে।

স্পয়লার দেওয়া অত্যন্ত খারাপ অভ্যাস৷ তবে যে স্পয়লারে মানুষকে বইয়ের দিকে টেনে আনা যায়, সে'সব চেপে রাখতে নেই৷ বিশ্বাস করুন, এ গল্পে সত্যিই এক বন্দুকবাজ বাঘ রয়েছে। আর রয়েছে একরাশ 'মিথ-বাস্টিং'৷ বাঘ-মানুষের সম্পর্কের আদা-কাঁচকলা ব্যাপারটা যে আগাগোড়াই গুল; সে'টা সম্বন্ধে নিশ্চিত হতে গেলে এ বই পড়তেই হবে। এরপর, এই ধরুন আপনার জানা উচিৎ যে বাঘ-ম্যানেজমেন্টে বুলেটের চেয়ে বেশি কাজ দেয় আচার। কেন? আমায় জিজ্ঞেস না করে বইটাই পড়ে ফেলুন৷ তা'ছাড়া বাঘেদের গ্যাসের ব্যামো হয়, তাদেরও রোদ্দুর রায় পায়; সে'সব জরুরী ইনফো সাজিয়ে হাতে-গরম জার্নাল তৈরি করেছে রোহণ৷ 

তবে হ্যাঁ, এ বই শুধু রোহণের নয়৷ কারণ এ বই পড়ার আনন্দ শুধু রোহণের লেখায় নয়। তন্ময়ের আঁকা ছবি এ বইয়ের প্রাণ। রোহণ খুব চেয়েছিল তন্ময় মুখুজ্জে এ বইয়ের জন্য ছবি আঁকুক৷ কিন্তু ব্যাটাচ্ছেলে মুখুজ্জে আঁকাতেও বানান ভুল করে। সে'জন্য রোহণকে অন্য তন্ময় খুঁজতে হয়েছে। আর বিশ্বাস করুন, তন্ময় বিশ্বাস জাস্ট ফাটিয়ে দিয়েছে৷ এই বই আমি আর খোকা একসঙ্গে পড়েছি; ইয়ে, আমি পড়েছি (লেখা এবং ছবি দু'টোই) আর খোকা ছবিগুলো গিলেছে৷ দু'জনেই একই ওয়েভলেন্থে থেকে গোটা গল্পটা উপভোগ করেছি। তাই বলে আবার ভাববেন না গল্পটা শুধুই ছোটদের৷ বুড়োবুড়িদের বালিশের তলা আলো করে তুলতে পারে এই বই৷ 

প্রকাশকের কাছে একটাই দাবী, এই বইয়ের স্পেশ্যাল এডিশন বের করা হোক। ইয়াব্বড়, কফিটেবিল বই সাইজের৷ প্লীজ, জরুরী।

No comments:

পুরনো লেখা