Tuesday, July 20, 2021

কর্পোরেট বাউল, রামপ্রসাদ আর দিল্লীর বৃষ্টি



- এ যে ক্যাটস অ্যান্ড ডগস ভায়া৷

- ট্র‍্যাফিকে জবাই হওয়া ছাড়া গতি দেখছি না৷

- আহ্, তোমার খালি হাফ গ্লাস এম্পটি৷ ট্র‍্যাফিকের হয়রানিটাই দেখলে? বৃষ্টির পারকুইজিটগুলো অবহেলা করলে চলবে কেন৷ সাফিশিয়েন্ট মিঠে হাওয়া, গরমের হাঁসফাঁস গন, সন্ধ্যের ফুলুরি রাতের খিচুড়ি..। ফোকাস অন দ্য কন্ট্রোলেবলস, ট্র‍্যাফিক তোমার হাতে নেই৷ কিন্তু খিচুড়ির পাশের ডিমভাজার কোয়ালিটি তোমারই হাতে রয়েছে৷ 

- চাকরীবাকরী ছেড়ে কর্পোরেট ট্রেনিংয়ে ঢুকে পড়ুন সুদীপদা৷ এ'সব সুড়সুড়ি দিয়ে বেশ টুপাইস ইনকাম হবে৷

- আমি নিজেকে কী বলি জানো? কর্পোরেট বাউল৷ প্রমোশনে নেই, ল্যাং মারামারিতে নেই৷ দিনের কাজ দিনের মধ্যে মিটিয়ে নাও আর তারপর জীবনপুরের পথিক মোডে মানুষ কালটিভেট করে বেড়াও৷

- তা এই বৃষ্টিকে কালটিভেট করতে হলে কী করতে হবে?

- জ্যামের দিকে দাঁত খিঁচিয়ে বসে না থেকে বৃষ্টির ফ্লোটা ফীল করো ব্রাদার৷ এ তো আর কলকাতা নয় যে ঘ্যানরঘ্যানর বৃষ্টি আড়াই মাস ধরে চলবে৷ দিল্লীতে এমন বৃষ্টি সহজে জোটে না৷ সো মেক দ্য মোস্ট অফ ইট৷ 

- কলকাতা৷ হুঁহ্৷

- ঝেড়ে কাশো৷ 

- কলকাতায় থাকতে কলকাতার বৃষ্টিকে কম গালাগাল দিইনি৷ অথচ এখন মনে হচ্ছে এমন দিনে গড়িয়াহাটে দাঁড়িয়ে ইলিশের দরদাম করলে মন্দ হত না৷ তারপর দাস কেবিন থেকে মোগলাই প্যাক করিয়ে নেওয়া৷ নাহ্, এ'সব ভেবে একটু খারাপই লাগছে সুদীপদা৷ আমি অবশ্য একটু হোমসিক বাই নেচার। 

- কী জানো ভায়া, বৃষ্টি ব্যাপারটা স্মৃতি আর সিনেমায় যতটায় সুন্দর, ডেলি প্যাসেঞ্জারিতে ততটা নয়। তবে আদত নির্বাণটা কোথায় জানো? টু রিয়ালাইজ দ্যাট ডেস্পাইট দ্য ইনকনিভিনিয়েন্সেস; সাম ডে, ইভেন দিস রেইন শ্যাল বি মিসড। একদিন এই দিল্লীর বৃষ্টির জন্যেও বুকের মধ্যে একটা হাহাকার অনুভব করবে৷ হাজার বারো বছর ধরে আমরা চাষবাস করে চলেছি হে, এই চাকরীর ঘানিটানা তো হালের ফ্যাশন৷ বৃষ্টিকে ভয় পাওয়া, শ্রদ্ধা করা, ভালোবাসা; এ আমাদের মজ্জায়৷ বহুদিন পর জবরদস্ত বৃষ্টি দেখলে বুক চলকে ওঠাটাই সিভিলাইজেশ্যন৷ 

- নাহ্৷ কর্পোরেট ট্রেনার না হয়ে বরং বাবাজী-টাবাজীই হয়ে পড়ুন৷ তা এই বৃষ্টির সন্ধ্যেকে ভালোবাসতে হলে কী করনীয়? 

- বাড়ি ফেরার তাড়া না থাকলে চলো তোমায় রামপ্রসাদ মিশ্রর মির্চি পকোড়া খাওয়াই৷ রামপ্রসাদের পকোড়া হাইক্লাস, তবে সে একটা ঝাল মিষ্টি চাটনি অফার করে; সে'টা লেজান্ডারি৷ সে আদতে বলিয়ার মানুষ, এবং দিল্লীর জামাই৷ তার চুয়ান্ন বছরের জীবনে বেয়াল্লিশ বছর দিল্লীতে থেকেছে সে, অথচ আজও নিজের গাঁয়ের কথা ভেবে সে ছটফট করে৷ আর সেই ছটফটটুকুই সে চ্যানেলাইজ করে তার পকোড়া ভাজায়৷ সে এক আর্টিস্ট ভায়া, কড়াই না ধরে ক্যানভাস ধরলে আজ সে ওয়ার্ল্ড ফেমাস হত। আর রামপ্রসাদ আমার ডিয়ারেস্ট বৃষ্টিতুতো ভাই৷ যাবে নাকি তার কাছে? তোমার দাসকেবিন আর গড়িয়াহাটের অভাব মিটিয়ে দেব, আই প্রমিস। 

- এ'সব জিনিয়াসের খবর আপনি পান কী করে?

- শুয়োরে শুয়োর চেনে আর বাউল চেনে বাউল। চলো, এ'বার রামপ্রসাদের দোকানে হানা দেওয়া যাক৷ তোমায় দিল্লীর বৃষ্টি না চেনালেই নয়৷ 

No comments:

পুরনো লেখা