Saturday, September 24, 2011

'তন্ময় মুখো'


২০০২।কলকাতা তখন কলেজে, থাকছি কলেজ স্ট্রীটের কাছে সীতারাম ঘোষ স্ট্রীটের এক মেস-বাড়িতেআমার তখনকার এপিক-আলস্যে ভরা জিন্দেগি নিয়ে, আমার সহ-মেসি বন্ধু, বর্তমানে বাংলা কবিতার একটা কংক্রিটে-নাম,অনিমিখ পাত্র, ওরফে আমাদের মেসের সার্বজনীন কবি’; হুট করে একটা ছড়া কষেছিল
আমার মত উলু-খাগড়ার যদি জীবনী হত, তবে এই ছড়াটাই হত উজ্জ্বলতম চ্যাপটার

****
"এটা মুখার্জি তন্ময়ের এককালের রোজনামচা, তার সৌজন্যেই আমার এ নশ্বর জীবনে শ্রেষ্ঠতম আলস্য দেখা হলো" - অনিমিখ পাত্র



ম্যাদামারা হয়ে থাকে তন্ময় মুখো
দুঃখও কিছু নেই,নেই কোনো সুখও
বিকেলেতে হাফ-প্লেট চাউমিন খায়
তারপর গুটিশুটি টিউশনি যায়
ফিরে এসে বিছানায় ফ্ল্যাট হয়ে পড়ে
মুখে ফুলঝুরি তবু হাত পা না নড়ে
ঘন ঘন ঘড়িটার দিকে সে তাকায়
কখন যে মাসি খেতে ডাকবে গো হায়!
খেয়েদেয়ে কিঞ্চিৎ আলোচনা চলে
তখন কেবল সে তো শা'রুখের দলে
বই খুলে বসলেই তার ঘুম পায়
'অনেক তো পড়লাম',বলে সে ঘুমায়...”

6 comments:

animikh patra said...

মাসি'র নাম ছিলো শিউলি ।

Bhalomanush said...

একঘর লেখা. একটা মন্তব্য করতে পারি? নিছক ভদ্রতা... করেই ফেলি... চোখ ঘষতে হয় এখনকার তন্ময়ের সঙ্গে মিল খুঁজতে চাইলে :)

Tanmay Mukherjee said...

@ bhalomanush :D

aritra sanyal said...

the picture lacks clarity...haasi ta ektu kholsaa holey hoto na? mane ektu jodi lobon...oi r ki

Sandy said...

bhalo...chhuye jaay!!

Sandy said...

bhalo obhibyakti...

পতাকা আর চীফগেস্ট

- এই যে। দত্তবাবু। কাল সোয়া সাতটার মধ্যে আসছেন কিন্তু। পৌনে আটটায় বড়সাহেব এসে পৌঁছবেন৷ ফ্ল্যাগ হয়েস্টিং আটটায়। - ধুস। পনেরোই অগস...