Tuesday, July 10, 2018

কলকাতা ইন্টেলেক্ট বনাম মুম্বই স্পিরিট

ওই। ওই যে। মুম্বই স্পিরিট আর কলকাতা ইন্টেলেক্ট হাতাহাতি শুরু করল বলে। এক্কেবারে রক্তারক্তি কিছু ঘটবেই এ'বার।

মুম্বই জামার হাতা গুটোয় তো কলকাতা পাঞ্জাবির পকেটে ডটপেন গুঁজে হুঙ্কার ঝাড়ে 'আয়ে তোকে মেরে তক্তা করি'।

মুম্বই বলে  'অ্যাইসা প্যাদানি দেব যে চার্নক আর চার্বাক গুলিয়ে যাবে', ও'দিকে কলকাতা টি-শার্ট-চে'র খুনে দৃষ্টিতে দুনিয়া জ্বালিয়ে দেওয়ার উপক্রম করে।

মুম্বই বাইসেপ ট্রাইসেপ বাগিয়ে, বড়াপাও চেবাতে চেবাতে হুড়মুড় করে তেড়ে আসে। আর কলকাতা চটপট চা-বিস্কুট শেষ করে, একটা মামলেটের অর্ডার দিয়ে দৌড়ে এসে চেল্লায় 'ডাকব পার্টির ছেলে? ডাকব'?

অমনি দুম করে নামে বৃষ্টি, ঝমঝমিয়ে।

আর তখন মুম্বইয়ের গলার তেজ মিহি হয়ে আসে "ভায়া, এ'বার ট্রেন ধরতে হবে যে। তবে কাল তোমার ছাড় নেই, এক্কেবারে ইস্তিরি করে ছাড়ব, কেমন"?

কলকাতা মাথা নেড়ে বলে "সেই ভালো। কালকেই বরং তোমার লাশ ফ্লাশ করে দেব'খন। আজ ভাবছি একটা সাতশো আটশো গ্রামের ইলিশ নিয়ে ফিরব। নয়ত এই ডাউনপোরকে জাস্টিফাই করা যাবে না। চলি, অ্যাঁ"?

No comments:

এমন একটা সোমবার

সহকর্মী মিহি সুরে ডেকে বলবেন, "ভাই, তোমার জন্য আজ পান্তুয়া এনেছি, বাড়িতে বানানো৷ তোমার বৌদির স্পেশ্যালিটি৷ লাঞ্চের পর আমার টেবিলে একবা...