Tuesday, November 2, 2021

অ্যাপোক্যালিপ্স

- এই যে স্যার৷ জ্ঞান ফিরেছে তা'হলে৷ চারদিকে তাকিয়ে দেখুন৷ এই বজরাই হচ্ছে এখন আপনার আস্তানা৷
- বাহ্৷ আপনার এই বজরাটা দিব্যি তো৷
- স্টেট অফ দ্য আর্ট মশাই৷ স্টেট অফ দি আর্ট৷
- বেশ৷ একটু জিরিয়ে নিই৷
- হ্যাঁ। বেশ তো৷ এ'খানে তো আপনার অখণ্ড অবসর৷ সামান্য ব্র্যান্ডি দিই? নাকি চা করে আনব? শুধু ব্ল্যাক টী পাবেন কিন্তু৷
- আপনি কিডন্যাপার৷ আপনি যখন বলছেন, তখন অখণ্ড অবসরই সই৷ যা দেবেন খেতে, তাই রুচবে৷
- অমন খিটখিটে মেজাজে কথা বলবেন না প্লীজ৷ বড় আশা করে আপনাকে নিয়ে এসেছি৷
- তুলে এনেছেন বলুন।
- এহ হে, কিডন্যাপিংয়ের ব্যাপারটা নিয়ে আপনি বেশ ইরিটেটেড বোধ করছেন৷ তাই নয় কি স্যর?
- ইরিটেটেড হওয়া উচিৎ নয়, তাই না? না হয় একটু ক্লোরোফর্ম শুঁকিয়ে চ্যাংদোলা করে তুলে এনেছেন৷ এ আর এমন কী৷
- শুনুন স্যার৷ অমন চ্যাটাংচ্যাটাং কথা বেশি বলবেন না৷ আমি আপনাকে প্রাণে বাঁচিয়েছি৷
- কিডন্যাপ করে?এই বিচ্ছিরি একটা স্টীমারে এনে আমার প্রাণ বাঁচিয়েছেন?
- এক্সকিউজ মি! এ'টা স্টীমার? চারদিকে চেয়ে দেখুন মশাই৷ এ'টা বজরা৷
- তা আমার প্রাণরক্ষা কী'ভাবে করেছেন?


- যে'ভাবে করার কথা ছিল৷ প্রলয় শুরু হয়ে গেছে৷ অর্ধেক পৃথিবী অলরেডি জলের তলে৷ কলকাতা ভেসে গেছে আজ ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ। এক্কেবারে যাকে বলে ডিলিউজড৷ বাকি দুনিয়াটা ডুবে যাবে আগামীকাল দুপুরের মধ্যে৷ সে জলও অবিশ্যি বিষিয়ে যাবে৷ টোটাল ডেস্ট্রাকশন। ধুয়েমুছে সাফ।
- অ্যাপোক্যালিপ্স?
- ইয়েস স্যার৷
- কিডন্যাপার৷ গুল শিরোমণি৷ আপনার বায়োডেটাটা বেশ ইম্প্রেসিভ কিন্তু৷
- উড়িয়ে দিতে পারেন৷ তবে অল্প সময়ের মধ্যেই মালুম হবে, আমি ভুল বলছি না৷
- আপনি নোয়া?
- নোয়া নয়৷ নোয়া ট্যু পয়েন্ট ও৷
- এ'টা আপনার আর্ক ট্যু পয়েন্ট ও?
- আরে মশাই এ তো আর বিফোর ক্রাইস্ট নয়৷ এ'টাও আর্ক নয়, শৌখিন বজরা৷ বললাম তো৷
- গা জ্বলে যাচ্ছে৷
- অবিশ্বাস কেটে গেলে স্বস্তি পাবেন। পৃথিবী ভেসে যাচ্ছে স্যার৷ আমরাই শুধু রইনু বাকি৷
- তা, ইয়ে৷ আমার এনেছেন কী মতলবে? আপনিও পুরুষ৷ আমিও তাই। যদি পৃথিবীকে রিপপুলেট করতেই হয়, তা'হলে তো আমরা সাফিশিয়েন্ট নই৷ তাছাড়া জন্তুজানোয়ার আর গাছপালার স্যাম্পেলগুলো কই?
- আরে ধুর ধুর৷ আমার বয়ে গেছে এ'সব জঞ্জাল আবার রিক্রিয়েট করতে৷ সব বিষিয়ে গেছে স্যার। সব। এবার সব কিছু ধুয়েমুছে সাফসুতরো হয়ে গেলেই মঙ্গল৷
- তা ভাই, আমিও তো সেই বিষাক্ত পৃথিবীরই একজন। আমিও ভেসে গেলেই ভালো হত না?
- না স্যার৷ না৷ শেষ আলোটুকু আপনার সুরেই ছিল৷ তাই আপনাকে নিয়ে আসা৷ এ বজরায় কয়েক মাসের খাবার মজুদ করা আছে৷ আপনার গিটার, মাউথঅর্গান আর কীবোর্ডটাও আনিয়ে রেখেছি৷ আর রিপপুলেট করার গবেটামো নয়৷ এ'বারে শুধু আপনার গানে গানে ভেসে গিয়ে ফুরিয়ে যাওয়া৷ ব্যাস৷ হিসেব খতম৷ দুনিয়াদারীর হাড়বজ্জাতি আর সহ্য হয় না৷
- আমরা সত্যিই কোথায় আছি বলবেন?
- আমি মিথ্যে বলছি না সুমনবাবু৷ অনন্ত সাগরে আর নিরেট অন্ধকারে; আমরাই শেষ দুই প্রাণবিন্দু৷ আপনার গানই শেষ আলো৷ সে আলো নেভার পর সমস্ত শেষ৷
- ভাই নোয়া..।
- আর গাঁইগুঁই নয় সুমনবাবু৷ ওই যে আপনার গীটার৷ এই নিন, ধরুন। এ'বার একটা গান হোক দেখি৷ আমার আর আপনার কিন্তু সত্যিই আর কোথাও যাওয়ার নেই, কিচ্ছু করার নেই।

No comments: