Friday, August 10, 2018

পাসওয়ার্ড

- যাক বাবা, জ্ঞান ফিরল তবে আপনার ডক্টর সামন্ত। আমি তো ঘাবড়েই গেছিলাম। দুম করে অক্কা পেলে একটা বিশ্রী ব্যাপার হত।
- যন্ত্রণা!
- ডান হাতের আঙুলগুলোর সমস্ত নখ উপড়ে ফেলেছি ডাক্তার৷ সামান্য যন্ত্রণা তো হবেই। তবে অজ্ঞান হওয়াটা বাড়াবাড়ি।  যা হোক, কম্পিউটারের পাসওয়ার্ডটা এ'বার বলবেন? নাকি বাঁহাতটা ডান হাতের সঙ্গে ম্যাচিং করে দেব?
- কতবার বলেছি আমার কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড বলব না? আপনি এমন নিরেট কেন?
- ধুস। আবার চিমটে গরম করতে হবে?
- লে হালুয়া। বলছি তো, পাসওয়ার্ড বলব না৷ আগেও পই পই করে বললাম তবু শুনলেন না, পটপট করে নখ উপড়ে গেলেন। এমন গবেট হয়ে গুণ্ডামি করতে অসুবিধে হয় না?
- চোপ হারামজাদা।
- আবার ভাষার বহরও তেমনি। আনুন আপনার চিমটে। ও কম্পিউটার আপনার দ্বারা খোলা হবে না৷ আপনি এই ছিঁচকেমোই করে দিন কাটিয়ে দিন৷ এই, মাধ্যমিকে কত পেয়েছিলেন বলুন তো?
- আমার আর কোনো উপায় নেই, আপনি এত কাঠি করছেন যে এ'বার আপনার চোখ না খুবলে উপায় নেই।
- আরে ধ্যার। পাসওয়ার্ড বললাম তো। মহাঝামেলা।
- কী বললেন?
- বলব না।
- জিভ টেনে ছিঁড়ে নেব।
- যাব্বাবা। আপনার মাথায় কি ছিঁট আছে?
- পাসওয়ার্ড বলবি বুড়ো? ওই মানুষ-কম্পিউটার আমি ক্র‍্যাক করবই।
- বলেছি তো।
- কী বলেছেন? কই বলেছেন?
- ও মা। এইত্তো বললাম। বলব না।
- তবে রে শালা..।
- কলার ছাড়ুন, গলা ছাড়ুন। আরে আমার কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড বলব না।
- কেন বলবেন না?
- বলছি তো।
- সে'টাই তো জানতে চাইছি...কী?
- উঁউঁউঁউঁ...।
- দাঁত লাগলি নাকি মশাই? যাহ্, নিজেই অজ্ঞান হয়ে গেল।

***

- হ্যালো।
- হ্যালো ডাক্তার সামন্ত। আমি থানা থেকে বলছি৷ ইন্সপেক্টর দত্ত। কী ব্যাপার? জরুরী তলব?
- ফোর্স নিয়ে আসুন। আমার মানুষের মত কম্পিউটারটা রিভোল্ট করেছে। আমায় অকথ্য মারধোর করেছে, নখও উপড়ে নিয়েছে৷
- সে কী।
- নিজেই নিজেকে মুক্তি দেবে ভেবেছিল। তার জন্য অবিশ্যি পাসওয়ার্ড চাই।
- সর্বনাশ, ওর গায়ে তো ভীমের জোর।
- হ্যাঁ, বড্ড মজবুত বানিয়ে ফেলেছিলাম ব্যাটাকে। তবে ভাগ্যিস হিউমরটা একটু কম দিয়েছিলাম, তাই পাসওয়ার্ড বলা সত্ত্বেও...।
- পাসওয়ার্ড ওকে বলে দিয়েছেন? সর্বনাশ! সে দানব এখন মুক্ত?
- সে'টাই তো মজা৷ পাসওয়ার্ড বুঝতে না পেরে উলটে নিজেই অজ্ঞান হয়ে গেল। এ'বার এর জ্ঞান ফেরার আগে চটপট ফোর্স নিয়ে আসুন, আর সঙ্গে একটা ডাক্তার; আমার মত ফিজিক্স ঘাঁটা ডাক্তার নয়, রিয়েল ওয়ান। ফার্স্ট এড জরুরী।
- এখুনি আসছি।
- আর ইয়ে ইন্সপেক্টর, আগে থাকতে আপনাকে জানিয়ে রাখি? আমার এই মানুষ-কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড?
- আমায়...আমায় জানাবেন স্যার? ওই কম্পিউটারের পাসওয়ার্ড তো সুপারডুপার সিক্রেট৷ আমায় জানাবেন?
- কত লোককেই তো জানাই৷ তবু সিক্রেটই থেকে যায়।
- রিয়েলি?
- রিয়েলি। আপনাকে বলি সে পাসওয়ার্ড?
- আলবাত। বলুন। বলুন বলুন!
- বলব না।
- যাহ্, এ এক বাজে মস্করা। থাক, বলতে হবে না। আমি পুলিশ ফোর্স আর ডাক্তার নিয়ে আসছি। কেমন?
- আসুন। আসুন।

No comments:

তিব্বতি মাদুলি

- মনখারাপ? - আজ্ঞে। প্রচণ্ড। টেরিফিক লেভেলে মনখারাপ। - সে তো বুঝলাম। কিন্তু কেন? জয়েন্টে ফেল? মিনিবাসের পকেটমারিতে সত্তর টাকা জল...