Sunday, January 24, 2021

এস্পারওস্পার ফেসবুক পোস্ট



- এই যে! অনন্ত৷ তোকেই খুঁজছিলাম।
- ব্যাপার কী নির্মলদা। ক্যারমের পার্টনার খুঁজছ নাকি? ক্লাবের টুর্নামেন্টের জন্য?
- আরে না না৷ ও'সব নন-ইন্টেলেকচুয়াল প্লাস নন-ফিজিকাল খেলায় আমি নেই।
- তোমার দরকার বক্সিং আর দাবা মিশিয়ে একটা চাবুক ফর্ম্যাট।
- বাজে কথা না বলে কাজের কথাটা মন দিয়ে শোন।
- বেশ৷ বলো।
- আচ্ছা, তুই ডিএসএলআর নিয়ে ছবি তুলে বেড়াস তো?
- তা, তুলে বেড়াই বটে।
- গুড। চট করে একবার বাড়িতে গিয়ে সে'যন্ত্রটা গলায় ঝুলিয়ে নিয়ে আয় দেখি৷
- তোমায় কিছু ছবি তুলে দিতে হবে নাকি?
- না৷ তুই ছবি তোলার পোজ দিয়ে দাঁড়াবি। আর আমি সেই পোজের ছবি তুলব৷ আমার এই মোবাইল ক্যামেরায়।
- ও মা৷ সে কী৷ কেন?
- একটা সার্কাস্টিক ফেসবুক পোস্ট লিখছি৷ আমার সেই একপেশে এস্পারওস্পার স্টাইলে৷ ডিএসএলআর বাগানো সুডো-ইন্টেলেকচুয়াল ফটোগ্রাফারদের কচুকাটা করব। সঙ্গে একটা লাগসই ফটো দরকার৷
- ডিএসএলআর আবার কী দোষ করল।
- ওই যে৷ সবাই ও জিনিস গলায় মাদুলির মত ঝুলিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ছে৷ মহালয়ার কুমোরটুলিই হোক বা হাফ-শীতের কলকাতা। ওই আদেখলাপনা নিয়ে একটা হার্ড হিটিং পোস্ট না লিখলেই নয়৷
- লোকে শখে ছবি তুলছে, মাস্তান লেলিয়ে ভোট তো আদায় করছে না৷ তা'তে আপত্তিটা কোথায়?
- তাই বলে সবাই ছবি তুলবে অনন্ত? ব্যাপারটা কি অতই মামুলি? দুনিয়াটা এ'বার সস্তা ফটোগ্রাফারে ভেসে যাবে৷
- সবাই যে সারকাজমও ঝাড়ছে নির্মলদা৷ সে ব্যাপারটাও কি যেমন তেমন? দুনিয়াটা সস্তা বঙ্কিমে ভেসে গেলে কি ভালো হবে?

No comments:

এমন একটা সোমবার

সহকর্মী মিহি সুরে ডেকে বলবেন, "ভাই, তোমার জন্য আজ পান্তুয়া এনেছি, বাড়িতে বানানো৷ তোমার বৌদির স্পেশ্যালিটি৷ লাঞ্চের পর আমার টেবিলে একবা...