Tuesday, May 2, 2017

জাপানী অ্যালার্ম

- এই যে। এই যে স্যার! শুনছেন?
- উঁ।
- স্যাটারডে সকালে বাড়তি ঝিমটি দেবেন, তা'তে ক্ষতি নেই। কিন্তু বেলা কত হল খেয়াল আছে কি?
- উঁ, উঁ।
- মানে মানে উঠে পড়বেন না পায়ে সুড়সুড়ি দেব?
- কী হচ্ছেটা কী?
- আপনাকে ঘুম থেকে তোলাটা দরকারি।
- কে বলেছে দরকারি?
- আমি অ্যালার্ম ঘড়ি, মানুষকে ঘুম থেকে তোলা ছাড়া আমার অবভিয়াসলি আর কোনও কাজ নেই। কাজেই আপনার ঘুম সময়মত ভাঙিয়ে দেওয়া আমার কাছে পৃথিবীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ।
- জাপানীরা যে কী সর্বনেশে ঘড়িই বানালে। আর আমি কী কুক্ষণেই যে গতকাল এস্পল্যানেড থেকে কিনতে গেলাম।
- কথায় কথায় জাপানী বলবেন না, আমি বাঙালি ঘড়ি হিসেবে কনফিগারড।
- স্নুজ মেরে চুপটি করে বসুন। আরও আধ ঘণ্টা লাগবে আড়মোড়া ভাঙতে।
- অসম্ভব। লুচি ঠাণ্ডা হয়ে যাবে।
- কী?
- লুচি। মিইয়ে যাচ্ছে। উঠুন।
- ধ্যার। আমাদের বাড়িতে ও'সব হয় না। সবাই ক্যালরি কনশাস।
- মাইরি। গড প্রমিস। আজ আপনার জন্য লুচি। সারপ্রাইজ রেখেছেন বৌদি।
- রিয়েলি?
- জি এম টির মত।
- ইউরেকা!

**

- মিতুলামসি ঘাঘামাচি, হাকুচি মোকানুচো মিচ্যনুক তানুকাসি?
( পাঠকদের স্বার্থে অনুবাদ: বলেন কি ডক্টর ঘাঘামাচি, এই অ্যালার্ম ঘড়ি বাঙালিদের ল্যাদ ঘুম ভাঙাতে পারবে?)

- ওকাচোকি ওকাচোকি, মুশ ওকাচোকি। মুচ হাকুচি চুনাকানোচি মগিয়ামা।
(পাঠকদের স্বার্থে অনুবাদ: পারবে পারবে নিশ্চই পারবে। এ ঘড়িকে আমি ডাহা মিথ্যে বলতে শিখিয়েছি)।

No comments: